1. brigidahong@tekisto.com : anthonyf69 :
  2. mieshaalbertsoncqb@yahoo.com : delorismoffitt :
  3. gkkio56@morozfs.store : doriereddick :
  4. : admin :
  5. kleplomizujobq@web.de : humbertoabdullah :
  6. sjkwnvym@oonmail.com : joellennnx :
  7. zpmylwix@oonmail.com : lela88146910269 :
  8. gertrudejulie@corebux.com : modestaslapoffsk :
  9. hellencardona@lingeriefashion.store : phillip6900 :
  10. cristinamcmaster6222@1secmail.com : renetrotter53 :
  11. mild@dewewi.com : sheldon37s :
‘প্রধানমন্ত্রীর উপহারে আমার দিন ফিরেছে' - ডিবিসি জার্নাল২৪
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ১২:২১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
সারা দেশে কমপ্লিট শাটডাউনের ডাক কোটা আন্দোলনকারীদের কোটা আন্দোলনকারীদের ধৈর্য ধরার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর তিন দিনে পদ্মা গর্ভে বিলীন শতাধিক বসতবাড়ি রাজশাহী বিভাগের শ্রেষ্ঠ জয়িতাদের সংবর্ধনা মঙ্গলবার রাসিক মেয়রের সাথে নবনিযুক্ত রাজশাহী জেলা শিক্ষা অফিসারের সৌজন্য সাক্ষাৎ বিভিন্ন ক্ষেত্রে যোগাযোগ ও সহযোগিতা বাংলাদেশ ও চীনের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যাবে:প্রধানমন্ত্রীর আশাবাদ যুব সমাজকে রক্ষা করতে অভিভাবকদের সচেতন হওয়ার আহ্বান কোটা সংস্কারের দাবিতে রাবি শিক্ষার্থীদের পদযাত্রা ও স্মারকলিপি প্রদান টেকসই উন্নয়নে সমবায় ভিত্তিক চাষাবাদ করতে হবে- প্রতিমন্ত্রী আ.ওয়াদুদ  কোটার হার পরিবর্তন করতে পারবে সরকার, হাইকোর্টের রায় প্রকাশ

N

‘প্রধানমন্ত্রীর উপহারে আমার দিন ফিরেছে’

  • আপডেট করা হয়েছে সোমবার, ১০ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৬২ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্ক: একটা সময় ছিল পথে পথে থেকেছি। ঝুপড়িঘর ভাড়া করেও থেকেছি। কী খাব, আর কোথায় থাকব, কিছুরই ঠিক ছিল না। এখন প্রধানমন্ত্রীর উপহারে আমার দিন ফিরেছে। একটু একটু করে দোকান বড় করেছি। আমার দোকানে এখন সব ধরনের মালামাল পাওয়া যায়। সন্ধ্যায় ইফতারি তৈরি করি। আল্লাহর রহমতে এখন অনেক ভালো আছি। প্রধানমন্ত্রীর উপহারে আমার দিন ফিরেছে।

ওপরের কথাগুলো খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটি ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পাওয়া সুবিধাভোগী নাসিমা আক্তার হীরা।

মাত্র দুবছর আগেও স্বামী আর দুই সন্তান নিয়ে কখনও ঝুপড়িঘর ভাড়া করে, কখনও পথে পথে থেকেছেন এই নারী। তবে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ও এক টুকরো জমিতে দিন বদলেছে তার। উপহারের সেই ঘরের সামনে বারান্দায় মাত্র ১৮০ টাকা পুঁজি দিয়ে শুরু করা চটপটির দোকানটি এখন বিভিন্ন মালামালে পূর্ণ একটি মুদি দোকান। দোকানটি নিজেই চালান নাসিমা। আর তার স্বামী কাজ করেন এক কারখানায়। এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে নাসিমার সংসার।

কেবল নাসিমা আক্তারই নন, আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে জীবন বদলেছে অনেকের। এ প্রকল্পে নিজ বাড়ির আঙিনায় কাজ করে আজ কেউ উদ্যোক্তা, আবার কেউ স্বল্প পুঁজিতে দিয়েছেন মুদি দোকান। এমনকি বাড়ির আঙিনায় হাঁস-মুরগি, গবাদিপশু পালন কিংবা সবজি বাগান করে স্বাবলম্বী হয়ে ওঠছেন আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসিন্দারা।

দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটি ইউনিয়নে আশ্রয়ণ প্রকল্পে তিন মাস আগে উঠেছেন স্বামীহারা নার্গিস বেগম। মেয়ে একটি কোম্পানিতে চাকরি করে আর নিজের বাড়ির আঙিনায় মুরগি পালন করেন তিনি। জীবনের শেষ সময়ে এসে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ও জমিতে দিন বদলেছে তারও।

জীবনের তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে নার্গিস বেগম বলেন, ‘২২ বছর আগে স্বামী আমাকে ছেড়ে চলে গেছে। এ ২২ বছর একমাত্র মেয়েকে নিয়ে পথে পথে ঘুরে বেড়িয়েছি; কতজনের কাছে আশ্রয় চেয়েছি, সবাই তাড়িয়ে দিয়েছে। জীবনে ভাবতেও পারিনি এমন পাকা ঘর আমার হবে, এখন আমি মরেও শান্তি পাব। আল্লাহ যেন শেখ হাসিনার আরও উন্নতি করে।’

সার্বিক বিষয়ে দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) খান মাসুম বিল্লাহ বলেন, উপজেলার সব আশ্রয়ণ প্রকল্পে আমরা নিয়মিত খোঁজ রাখি। পানি, বিদ্যুৎ বা অন্য কোনো সংকট দেখা দিলে তাৎক্ষণিক সমাধান করা হয়।

খুলনা জেলার মোট ৫ হাজার ৫২৯টি গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবারের মধ্যে এখন পর্যন্ত ৪ হাজার ৯১টি পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ও জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

সৌজন্যে : সময় টিভি

আরো সংবাদ পড়ুন

Designed by: ATOZ IT HOST