1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. dbcjournal24@gmail.com : ডিবিসি জার্নাল ২৪ : ডিবিসি জার্নাল ২৪
শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ১১:২৪ অপরাহ্ন

রাসিকের প্রধান প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ কাউন্সিলরদের

  • আপডেট করা হয়েছে সোমবার, ৮ জুন, ২০২০
  • ৯৫ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ২০১৭ সালের ২১ এপ্রিল রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ করেন বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। মেয়র বুলবুল দায়িত্ব গ্রহণের পরই দ্রুত পাল্টে যায় নগর ভবনের চিত্র। মেয়রকে খুশি করতে নগর ভবনের দেয়ালে দেয়ালে সাঁটানো বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত পোস্টার ছিঁড়ে ফেলেন খোদ রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক।

এ ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশিত হলেও এতোদিন বিষয়টিকে মিথ্যা ও অপপ্রচার দাবি করে আসছিলেন তিনি। তবে এবার বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত পোস্টার ছেঁড়ার বিষয়টি নিজেই স্বীকার করেছেন প্রকৌশলী আশরাফুল হক।

জানা যায়, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হকের চাকরির মেয়াদ আছে আর সাত মাস। এরই মধ্যে তিনি আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তিন হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক (পিডি) হতে। সেই সঙ্গে তদবির করছেন চাকরির মেয়াদ বাড়াতে। ইতিমধ্যে কয়েকজন কাউন্সিলরকে নিজের পক্ষে নিতে বিলিয়েছেন অর্থ। পিয়নের মাধ্যমে কাউন্সিলদের কাছে টাকা পাঠান প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক। এতে ক্ষুব্ধ হন কাউন্সিলরা। এর পেক্ষিতে সোমবার রাসিক মেয়রের কাছে তারা লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগে কাউন্সিলরকে নিজের পক্ষে নিতে ২০ হাজার টাকা করে দেয়া ও বিগত ২০১৭ সালের ২১ এপ্রিল মেয়র বুলবুল দায়িত্ব গ্রহণের পর মেয়রকে খুশি করতে দেয়ালে দেয়ালে সাঁটানো বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত পোস্টার ছিঁড়ে ফেলেন খোদ আশরাফুল হক। এছাড়াও নিজ দফতরে বসে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করার বিষটিও উল্লেখ রয়েছে।

আশরাফুল হকের এসব ন্যাক্কারজনক কর্মকাণ্ড নিয়ে সম্প্রতি বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ৭ জুন রাজশাহী স্থানীয় একটি পত্রিকায় উক্ত সংবাদের প্রতিবাদ দিয়েছেন প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক। প্রতিবাদে বঙ্গবন্ধু ছবি সম্বলিত পোস্টার ছেঁড়ার কথা স্বীকার করে বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত পোস্টার ছিঁড়ে পড়ে থাকায় পোস্টারগুলো যত্নসহকারে খুলে পুরাতন কাগজের সাথে সংরক্ষণ করা হয়।

তবে বঙ্গবন্ধুর ছবি ছেঁড়ার ভিডিওতে দেখা যায়, দেয়ালে লাগানো পোস্টার নিজ হাতে ছিড়ছেন প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক। সেই পোস্টার ছেড়া ছিল না। সে সময় সেখানে উপস্থিত রাসিকের অন্য কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, সত্য সংবাদের প্রতিবাদ ও অর্থ বিলির অভিযোগকে অবান্তর উল্লেখ করায় ক্ষুব্ধ রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলররা। তারা বলেছেন, ঈদের আগে পিয়নের মাধ্যমে কাউন্সিলরদের নিকট ২০ হাজার করে টাকা পাঠিয়েছেন প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক। তিন হাজার কোটি টাকার প্রকল্পের পিডি হতে কাউন্সিলরদের নিজের পক্ষে আনতেই এই অর্থ বিলিয়েছেন তিনি। এটি কোনভাবেই মিথ্যা নয়। বিষয়টি তাৎক্ষণিক সকল কাউন্সিলর মেয়র মহোয়দকে অবহতি করেছি এবং লিখিতভাবে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। এসব ঘটনায় আশরাফুল হকের শাস্তি দাবি করেছেন কাউন্সিলররা।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বঙ্গবন্ধু পোস্টার ছেড়া, প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধুকে কটুক্তি ছাড়াও নানা দুর্নীতি ও অনিয়মে জড়িত প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক। সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের জন্য ঠিকাদারদের কাছ থেকে পার্সেন্টেস নিতেন তিনি। এভাবে বিভিন্ন দুর্নীতি ও অনিয়ম করে বিপুল সম্পদের মালিক হয়েছেন। গভীর অনুসন্ধান করলে তার সকল দুর্নীতি ও অনিয়ম প্রকাশিত হবে দাবি করেন রাসিকের ওই কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

আরো সংবাদ পড়ুন