1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. dbcjournal24@gmail.com : ডিবিসি জার্নাল ২৪ : ডিবিসি জার্নাল ২৪
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

Categories

দুর্গাপুরে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক, মুচলেকায় ছেড়ে দিলো পুলিশ

  • আপডেট করা হয়েছে শনিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২০
  • ৫৩২ বার পড়া হয়েছে

দুর্গাপুর প্রতিনিধি :রাজশাহীর দূর্গাপুরে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে জনতার হাতে আটক হয়েছেন সাংবাদিক পরিচয়ে জাতীয় পার্টির নেতা বাবর ও তার ক্যামেরাম্যান নূর জামাল ও রাকিব। পরে মুচলেকায় ছেড়ে দিয়েছে দূর্গাপুর থানা পুলিশ।

শনিবার দুপুরে উপজেলার চৌপুকুরিয়া সবুজ সাথী প্ল্যাষ্টিক কারখানায় গিয়ে চাঁদাবাজির সময় তাদের ধরে পুলিশে দেয় উত্তেজিত জনতা।

আটককৃতরা হলেন- রাজশাহীর কাটাখালী পৌর এলাকার জাতীয় পার্টির নেতা বাবর ও তার ক্যামেরাম্যান পাক ইসলামপুরের নূর জামাল ও দূর্গাপুর উপজেলার চককৃষ্ণপুর গ্রামের আফজালের ছেলে রাকিব।

স্থানীয়রা জানান, বাবর ও নূরজামান নিজেকে সংবাদ চলমানের রাজশাহীর বড় সাংবাদিক বলে পরিচয় দেন। এবং তাদের কাছে সংবাদ চলমান নামের অনলাইন নিউজ পোর্টালের পরিচয় পত্র ও একটি বড় ক্যামেরা পাওয়া গেছে। এই পরিচয় ব্যবহার করে ক্যামেরাম্যান নূর জামালের সহায়তায় তিনি বিভিন্ন বেকারি, মিষ্টান্ন দোকান ও ফ্যাক্টরিতে গিয়ে অনিয়মের খবর প্রচারের হুমকি দিয়ে বহুদিন ধরে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছেন।

এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার দুপুরে দূর্গাপুর উপজেলার চৌপুকুরিয়ায় প্লাষ্টিক কারখানায় গিয়ে চাঁদাবাজি করার সময় তাদের ধরে পুলিশের নিকট উত্তেজিত জনতা তুলে দেয়। পরে পুলিশ রহস্যজনক কারণে আটকের ১ ঘন্টা পরে দুপুর দেড়টার দিকে নূর জামাল,রাকিব ও বাবরকে ছেড়ে দেয়।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, নূরজামান ও বাবরের বিরুদ্ধে একাধিক মানুষকে ব্ল্যাকমেইল করে মোটা অংকের অর্থ আদায়ের অভিযোগে রয়েছে। নূরজামাল নিজেকে রাজশাহীর বড় সাংবাদিক পরিচয় দেয় কিন্তু তিনি বিদেশ থেকে এসে অষ্টম শ্রেনী পাশ করেই কথিত নিউজ পোর্টাল সংবাদ চলমানের সিনিয়র ক্যামেরাপারসন বনে গেছেন।

নওপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আমি একটি দাওয়াতে এসেছিলাম পরে দেখি দুইজন ব্যক্তি তারা ফ্যাক্টরিতে এসে চাঁদাদাবি করে পরে উত্তেজিত জনতা পুলিশে খবর দেয় তাদের মুচলেকায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে দূর্গাপুর থানার ওসি খুরশিদা বানু কনা জানান, তারা সাংবাদিক কিনা সত্যতা যাচাই করার জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম কিন্তু ভুক্তভোগীদের আনিত চাঁদাবাজির অভিযোগের মামলা না করায় শনিবার দুপুরেই তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

আরো সংবাদ পড়ুন