1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. dbcjournal24@gmail.com : ডিবিসি জার্নাল ২৪ : ডিবিসি জার্নাল ২৪
করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন পুলিশের এসআই - ডিবিসি জার্নাল২৪
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:১১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে চায় ব্রাজিল রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের চলমান উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রাজশাহীতে নগর আওয়ামী লীগের জরুরী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত দুর্গাপুরে স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে ৯৯৯ স্ত্রীর ফোন! অতঃপর উদ্ধার ৮ই ডিসেম্বর তাহেরপুর পৌরসভার প্রতিষ্ঠাতা শহীদ আলো খন্দকার এর ১৯তম শাহাদাত বার্ষিকী বাগমারা গনিপুর ইউপি’তে মাধাইমুড়ি-মরাকুড়ি রাস্তা’র বক্সকাটিং এর উদ্বোধন বাবা হত্যার বিচার চাইতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ছুটে আসলেন জাহেদুল নাশকতার মামলায় বিএনপির ৩ নেতা গ্রেপ্তার পুঠিয়ায় প্রতীক বরাদ্দের আগেই চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীর পোষ্টার ছাপিয়ে ফেসবুকে প্রচার দুর্গাপুরের ভবানীপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫ম শ্রেনীর পরীক্ষার্থীদের বিদায়ে অনুষ্ঠান

Categories

করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন পুলিশের এসআই

  • আপডেট করা হয়েছে শনিবার, ৬ জুন, ২০২০
  • ২৮২ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্ক: প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন পুলিশের একজন এসআই। মৃত ওই পুলিশ সদস্যের নাম ইকরামুল ইসলাম (৪৫)। তিনি সীতাকুণ্ড থানার সহকারী পরিদর্শক (এসআই) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। বিগত চার দিন ধরে সর্দি ও জ্বরে ভুগছিলেন তিনি।

৬ জুন, শনিবার সকালে পৌরসদরস্থ উত্তর বাজারের ভাড়া বাসায় মারা যান ইকরামুল ইসলাম। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন একই থানার ইন্সপেক্টর (ইনটিলিজেন্স) সুমন বণিক ও ওসির গাড়ি চালক। সীতাকুণ্ড মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিরোজ হোসেন মোল্লা এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

মৃত ইকরামুল ইসলামের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা জেলার লাকসাম থানার কাঠালিয়া এলাকায়। করোনা পরীক্ষার জন্য মরদেহের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

থানা সূত্র জানায়, সীতাকুণ্ড পৌরসভার উত্তর বাজারে ভূইঁয়া টাওয়ার নামের একটি ভবনে থাকতেন ইকরাম। ১ জুন থেকে সর্দি-জ্বরে ভুগছিলেন তিনি। চিকিৎসকের পরামর্শে ওষুধও খাচ্ছিলেন। শনিবার সকাল ১১টার দিকে একই ফ্ল্যাটের অন্য দুজন তাকে ঘুম থেকে ডাকতে গেলে মুখে ফেনাসহ অচেতন অবস্থায় দেখতে পান। থানায় খবর দিলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে সীতাকুণ্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠালে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে ওসি ফিরোজ হোসেন মোল্লা জানান, চার দিনেও জ্বর না কমায় আজ করোনা পরীক্ষার নমুনা দেয়ার কথা ছিলো ইকরামের। কিন্তু এর মধ্যেই সকালে খবর আসে তিনি মারা গেছেন। এছাড়া থানার ইন্সপেক্টর (ইনটেলিজেন্স) সুমন বণিকসহ এক গাড়ি চালকের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ পাওয়া গেছে। তারা বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা নুর উদ্দিন রাশেদ জানান, নিহতের মুখে ফেনা ছিলো। এ কারণে প্রাথমিকভাবে স্ট্রোকে মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে তিনি যেহেতু জ্বর ও সর্দিতে ভুগছিলেন তাই করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

আরো সংবাদ পড়ুন