1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. dbcjournal24@gmail.com : ডিবিসি জার্নাল ২৪ : ডিবিসি জার্নাল ২৪
বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:৫৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

রাজশাহী মহানগর আ.লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন

  • আপডেট করা হয়েছে মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ৮৩ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:  রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দিয়েছেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে সভাপতি ও ডাবলু সরকারকে সাধারণ সম্পাদক রেখে কমিটির অনুমোদন দিয়ে স্বাক্ষর করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এছাড়া প্রস্তাবিত ৭৫ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটির ছয়টি পদে পরিবর্তন এনে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। আর কমিটির উপদেষ্টা করা হয়েছে ২১ সদস্যকে।

সূত্র মতে, প্রস্তাবিত পূর্ণাঙ্গ কমিটির ছয়টি পদে পরিবর্তন আনা হয়। আর বাদ দেয়া হয়েছে দুইজনকে। এদের মধ্যে একজনকে উপদেষ্টামন্ডলিতে নেয়া হয়েছে। এছাড়াও সহ-সভাপতি ও যুগ্ম সম্পাদক পদে কিছুটা রদবদল হয়েছে। নতুন একজন যুক্ত হয়েছে সাংগঠনিক পদে। এর বাইরে নিচের সারির অন্যান্য পদেও রদবদল এসেছে বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

সূত্রমতে, ১১ সদস্যের সহ-সভাপতি পদে ঠাঁই পেয়েছেন আগের কমিটির যুগ্ম-সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ নাইমুল হুদা রানা। আর যুগ্ম-সম্পাদক করা হয়েছে আগের কমিটির সদস্য ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক পিন্টুকে। প্রস্তাবিত কমিটিতে নাইমুল হুদা রানাকে যুগ্ম সম্পাদক এবং আহসানুল হক পিন্টুকে শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক রাখা হয়েছিল।

এছাড়াও এবারও সাংগঠনিক সম্পাদক পদ পেয়েছেন আজিজুল আলম বেন্টু, আসলাম সরকার। প্রস্তাবিত কমিটিতে তাকে সদস্য রাখা হয়েছিল। এছাড়াও এ পদে নতুন যুক্ত হয়েছেন আগের কমিটির উপ-প্রচার সম্পাদক মীর ইশতিয়াক আহমেদ লিমন।

পুর্নাঙ্গ কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি হয়েছেন মেয়রপত্নী শাহীন আকতার রেনী। অন্য সহ-সভাপতিরা হলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, আলহাজ্ব মাহফুজুল আলম লোটন, বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, সৈয়দ শাহাদত হোসেন, অধ্যক্ষ শফিকুল রহমান বাদশা, রেজাউল ইসরাম বাবুল, ডা. তবিবুর রহমান শেখ, নাইমুল হুদা রানা ও বদিউজ্জামান খায়ের।

নতুন কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, আসাদুজ্জামান আসাদ, আহসানুল হক প্টিু, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট মোসাব্বিরুল ইসলাম, কৃষক বিষয়ক সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জিয়া আমাদ হোসেন হিমেল, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক ফিরোজ কবির সেন্টু, দপ্তার সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম বুলবুল, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব জাহিদুল ইসলাম জাহিদ।

প্রচার সম্পাদক দিলীপ ঘোষ, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রবিউল আলম রবি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শ্যাম দত্ত, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ইয়াসমিন রেজি ফেন্সি, যুব ও ক্রিড়া সম্পাদক মকিদুজ্জামান জুরাত, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আনসারুল হক, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক এএসএম ওমর শরীফ রাজিব, শ্রম সম্পাক আব্দুল সোহেল, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কামারুল্লাহ সরকার কামাল, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. ফ. ম. আ. জাহিদ।

এছাড়াও সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট আসলাম সরকার, আজিজুল আলম বেন্টু, মীর ইশতিয়াক আহমেদ লিমন, উপ-দপ্তর সম্পাদক পঙ্কজ কুমার দে, উপ-প্রচার সম্পাদক সিদ্দিক আলম, কোষাধ্যক্ষ এবিএম হাবিবুল্লাহ ডলার।

সদস্যরা হলেন, এ্যাডভোকেট মোজাফফর হোসেন, নফিকুল ইসলাম সেল্টু, নিঘাত পারভীন, আরিফা বেগম, জহির উদ্দিন তেতু, শামসুজ্জামান আওয়াল, মোসাদ্দেক হোসেন লাবু, মুশফিকুর রহমান হাসনাত, নজরুল ইসলাম তোতা, হাবিবুর রহমান বাবু, এনামুল হক কলিন্স, মো. শাহাবুদ্দিন, আশরাফ হোসেন, এ্যাডভোকেট সামসুন্নাহার মুক্তি, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. আব্দুল মান্নান, আতিকুর রহমান কালু, হাফিজুর রহমান বাবু, আখতারুল আলম, আব্দুস সালাম, কল্পনা রায়, কানিজ ফাতেমা কেয়া, এ্যাডভোকেট শামীমা আক্তার খাতুন, তোজাম্মেল হক বাবলু, মমতাজ উদ্দিন, মুজিবর রহমান, ইসমাইল হোসেন, বাদশা শেখ, আলেমুল হাসান সজল, জয়নুল আবেদীন চাঁদ, ইউনুস আলী, খায়রুল ইসলাম শাহীন, মকলেসুর রহমান কচি, এ্যাডভোকেট রাশেদ-উন-নবী আহসান, মাসুদ আহম্মেদ, কেএম জুয়েল জামান, অশীষ তরু দে সরকার অর্পণ।

উপদেষ্টারা হলেন, প্রফেসর মুহ. কায়েস উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর রুহুল আমিন প্রামানিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক চৌধুরী, প্রকৌশলী মোহা. তাজুল ইসলাম, কবি আরিফুল হক কুমার, প্রফেসর নুরুল আলম, প্রফেসর গোলাম কবির, বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিমুদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দিন শেখ ভুলু, প্রফেসর ড. নজরুল ইসলাম মন্ডল, আফজাল হোসেন কচি, আব্দুর রাজ্জাক, ইসমাইল হোসেন, মনিরুল ইসলাম, নুরুল হুদা সরকার, আফতাব হোসেন চৌধুরী, মওলানা তাজুল ইসলাম, প্রফেসর ড. বারকুল্লাহ বিন দুর, প্রফেসর ড. প্রনব কুমার পান্ডে, মজিবুর রহমান রহিস উদ্দিন।

গত ১ মার্চ রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের দ্বিতীয়বারের মতো সভাপতি হন সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। আর সাধারণ সম্পাদক হন ডাবলু সরকার। এর পর গত ২০ সেপ্টেম্বর পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয় কেন্দ্রে।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

আরো সংবাদ পড়ুন